শুক্রবার ১৮ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ৪ঠা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ
Home / জাতীয় / ১৩ জুন থেকে স্কুল কলেজ খুলার নির্দেশ – দীপু মনি

১৩ জুন থেকে স্কুল কলেজ খুলার নির্দেশ – দীপু মনি

শেয়ার করুন

মহামারীকালে বছর গড়িয়ে ৩০ মার্চ স্কুল-কলেজ খোলার পরিকল্পনা ছিল সরকারের। কিন্তু করোনাভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ সেই পরিকল্পনায় বাদ সেধেছিল। পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসার পর আগামী ১৩ জুন থেকে স্কুল-কলেজ খোলার নতুন পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ এক আদেশে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা এবং শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার প্রস্তুতি গ্রহণ করতে বলা হয়েছে। শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি ইঙ্গিত দেওয়ার পরদিনই এই আদেশ হল।
গত বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেছিলেন, মহামারী পরিস্থিতি ‘খুব বেশি প্রতিকূল না হলে’ আগামী ১৩ জুন থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়া সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হবে। তিনি আগামী দুই মাসের মধ্যে পরিপূর্ণভাবে শিক্ষা কার্যক্রমে শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে সরকারের পরিকল্পনাও জানিয়েছিলেন।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের আদেশে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ আগামী ১২ জুন থাকা পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের বাসস্থানে অবস্থান করে টেলিভিশন ও অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রমের সংযুক্ত থাকতে বলা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের বাসায় অবস্থানের বিষয়টি অভিভাবকদের নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে। আর স্থানীয় প্রশাসনকে বলা হয়েছে তা নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করতে। বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেশে ঘটার পর গত বছরের ১৭ মার্চ সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হয়। এরপর দফায় দফায় তা বাড়তে বাড়তে আগামী ১২ জুন গিয়ে ঠেকেছে। এর মধ্যে গত ২৭ ফ্রেব্রুয়ারি শিক্ষামন্ত্রী সংবাদ সম্মেলনে এসে ৩০ মার্চ থেকে স্কুল-কলেজ ও ২৪ মে থেকে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার ঘোষণা দিয়েছিলেন। তবে তা আর পারেননি। বুধবারের সংবাদ সম্মেলনে দীপু মনি বলেন, সবাই দায়িত্বশীল হয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার অনুকূল পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে। তিনি জানান, স্কুল-কলেজ খোলার পর ২০২১ সালে এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের ক্লাস সপ্তাহের ৬ দিনই হবে। যারা ২০২২ সালে এসএসসি এবং এইচএসসি দেবে, তাদেরও সপ্তাহে ৬ দিনই ক্লাস নেওয়ার চেষ্টা করা হবে।
আর ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা প্রথমে সপ্তাহে একদিন করে ক্লাস করবেন। তারপর পরিস্থিতি দেখে দুই, তিন, চার দিন করা হবে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে এলে পূর্ণাঙ্গভাবে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো চলবে। তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক শিক্ষার্থীদের টিকাদান নিশ্চিত করার পরিকল্পনা থাকায় বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খোলার বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত এখনও দিতে পারেনি শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

শেয়ার করুন

এটি পড়ে দেখতে পারেন

দাম বাড়ছে যেসব পণ্যের

‘জীবন-জীবিকায় প্রাধান্য দিয়ে সুদৃঢ় আগামীর পথে বাংলাদেশ’ শিরোনামে নতুন অর্থবছরের (২০২১-২২) বাজেট দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ …